Thursday, June 30, 2022
Google search engine
HomeAdmissionRecent General Knowledge in University Admission Tests Part 01

Recent General Knowledge in University Admission Tests Part 01

আজ, আপনাদের কাছে Recent General Knowledge in University Admission Tests or বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় সাম্প্রতিক সাধারণ জ্ঞান নিয়ে হাজির হয়েছি । Admission পরীক্ষা নিয়ে চিন্তা করে না এমন লোক খুব কমই আছে। আজকে আমরা Admission Test এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয় Recent General Knowledge বিষয়ের Part 01 নিয়ে আলোচনা করবো। Recent General Knowledge in University Admission Tests

Recent General Knowledge in University Admission Tests

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় সাম্প্রতিক সাধারণ জ্ঞান

What is the meaning of admission test? ⇒ a test to see if someone should be admitted to a institute.
What is admission system? ⇒ The admission management system is a digital tool that helps educational institutions manage the student enrollment process effortlessly. It lets admission teams capture student inquiries, check their eligibility, follow-up, collect documents, and complete the application process digitally.

To do well in an admissions test, you need to prepare properly – so start by reading our ten top tips:

1. Check which test your course requires
2. Confirm key dates and deadlines
3. Get to know the test specification
4. Plan your preparation
5. Use the free preparation resources
6. Prepare effectively
7. Prepare using past paper questions 
8. Practise under timed exam conditions
9. Check what you need for the test
10. And finally – try to stay calm and positive on the test day

Admission test schedule for session 2021-2022 of all government or public university in Bangladesh will be available here. You would get here admission circular, application starting and dead line, admission test routine, application process and instruction’s link, admission related update notice and many more. Over 290,000 students have submitted their applications for admission into Dhaka University’s first year honours under the session of 2021-2022.

EveryOne are invited to inform about update news by comments in below.

আগামী বিশ্বের তথ্য

◊ ২০২২ সালে বহুল প্রতীক্ষার পদ্মা সেতু চালু হবে।
◊ ২০২২ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে মেট্রোরেল প্রকল্প চালু হবে।
◊ ২০২৫ সালে দেশের সর্ববৃহৎ রেল সেতু (বঙ্গবন্ধু রেল সেতু) নির্মাণের কাজ শেষ হবে।
◊ ২০২৬ সালে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে বেরিয়ে আসবে।
◊ ২০৩০ সালের মধ্যে দেশে অর্থনৈতিক অঞ্চল হবে ১০০ টি।
◊ ২০৩০ সালে এইডস মুক্ত হবে বিশ্ব (জাতিসংঘের বার্তা)।
◊ ২০৩০ সালে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি)’র মেয়াদ শেষ হবে।
◊ ২০৩০ সালের মধ্যে দেশকে চরম দারিদ্র্য দূরীকরণ করার লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ সরকার।
◊ ২০৪১ সালে সরকার বাংলাদেশকে উচ্চ আয়ের দেশে পৌঁছানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।
◊ ২০৪৭ সালে চীনের দ্বৈতনীতির মেয়াদ শেষ হবে।
◊ ২০৫০ সালের মধ্যে ইউরোপীয় অঞ্চলকে কার্বনমুক্ত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট।
◊ ২০৫০ সালে বিশ্বে জনসংখ্যা হবে- ৯৬০ কোটি (ওয়ার্ল্ড পপুলেশন রিপোর্ট)।
◊ ২০৫০ সালের মধ্যে কার্বন-নিরপেক্ষ দেশ হওয়ার ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।
◊ ২০৫০ সালে বিশ্বে জনসংখ্যায় শীর্ষ দেশ হবে – ভারত (ওয়ার্ল্ড পপুলেশন রিপোর্ট)।
◊ ২০৬০ সালের মধ্যে কার্বন-নিরপেক্ষ দেশ হওয়ার ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়া ও চীন।
◊ ২০৬২ সালে হ্যালির ধুমকেতু আবার দেখা যাবে।
◊ ২০৬৪ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে আবার বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে।
◊ ২১০০ সালে বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান এর সময়সীমা শেষ হবে।
◊ ২০২২ সালে অষ্টম টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- অস্ট্রেলিয়া।
◊ ২০২৪ সালে নবম টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- উইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে।
◊ ২০২৬ সালে দশম টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- ভারত ও শ্রীলংকায়।
◊ ২০২৮ সালে একাদশ টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে।
◊ ২০৩০ সালে দ্বাদশ টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- ইংল্যান্ড, আয়ারল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডে।
◊ ২০২৩ সালে ১৩ তম বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- ভারতে।
◊ ২০২৭ সালে ১৪ তম ক্রিকেট বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে- দ. আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে ও নামিবিয়ায়।
◊ ২০৩১ সালে ১৫ তম ক্রিকেট বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে- ভারত ও বাংলাদেশে।
◊ ২০২২ সালে অষ্টম নারী টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- দক্ষিণ আফ্রিকায়।
◊ ২০২২ সালের ৪ মার্চ -৩ এপ্রিল ১২ তম মহিলা ক্রিকেট বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে- নিউজিল্যান্ডে।
◊ ২০২২ সালে ১৫ তম এশিয়া কাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- শ্রীলংকায় [এ আসরটি টি-২০ ফরম্যাটে হবে]।
◊ ২০২৩ সালে ১৬ তম এশিয়া কাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হবে- পাকিস্তানে।
◊ ২০২৫ সালে নবম ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নস ট্রফি অনুষ্ঠিত হবে- পাকিস্তানে।
◊ ২০২৯ সালে দশম ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নস ট্রফি অনুষ্ঠিত হবে- ভারতে।
◊ ২০২২ সালে ২২ তম বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে- কাতারে।
◊ ২০২৩ সালে এশিয়ান কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে- চীনে।
◊ ২০২৩ সালে ৯ম নারী বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে- অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে।
◊ ২০২৬ সালে ২৩ তম বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে- যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও মেক্সিকোতে।
◊ ২০৩০ সালে বিশ্বকাপ ফুটবলের শতবর্ষ পূর্ণ হবে।
◊ ২০৩০ সালে ২৪ তম বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে- আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে (সম্ভাব্য)]-তে।
◊ ২০২২ সালের ২২ জুলাই -৭ আগস্ট ২২ তম কমনওয়েলথ গমস অনুষ্ঠিত হবে- ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে।
◊ ২০২২ সালের ১০-২৫ সেপ্টেম্বর ১৯ তম এশিয়ান গেমস অনুষ্ঠিত হবে- চীনের হাংঝুয়ে।
◊ ২০২৬ সালে ২০ তম এশিয়ান গেমস অনুষ্ঠিত হবে- জাপানের নাগোয়াতে।
◊ ২০২২ সালে ২৪ তম শীতকালীন অলিম্পিক গেমস হবে- চীনের রাজধানী বেইজিং – এ।
◊ ২০২৪ সালে ৩৩ তম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হবে- ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে।
◊ ২০২৮ সালে ৩৪তম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হলে- যুবানোর লস অ্যাভেলসে।
◊ COP (জাতিসংঘ জলবায়ু বিষয়ক) সম্মেলন ২৭তম ২০২২ সাল মিশর।
◊ COP (জাতিসংঘ জলবায়ু বিষয়ক) সম্মেলন ২৮তম ২০২৩ সাল সংযুক্ত আরব আমিরাত।
◊ জি ২০ (বার্ষিক)সম্মেলন ১৭ তম ২০২২ সাল বালি ইন্দোনেশিয়া।
◊ জি ২০ (বার্ষিক)সম্মেলন ১৮তম ২০২৩ সাল ভারত।
◊ BRICS সম্মেলন ১৪তম ২০২২ চীন।
◊ জি-৭ শীর্ষ সম্মেলন ৪৯তম ২০২৩ জাপাম।
◊ জি-৭ শীর্ষ সম্মেলন ৫০তম ২০২৪ ইতালি।
◊ আন্তর্জাতিক এইডস সম্মেলন ২৪তম ২০২২ সাল মন্ট্রিল, কানাডা।
◊ OIC (ত্রি বার্ষিক) সম্মেলন ১৫তম ২০২২সাল বানজুল, গাম্বিয়া।
◊ BIMSTEC সম্মেলন ৫ম ২০২২ সাল শ্রীলঙ্কা।

◊ Nam সম্মেলন ১৯তম ২০২৩ সাল উগান্ডা।

অনুশীলন

০১. ২০৩০ সালের মধ্যে দেশে কতটি অর্থনৈতিক অঞ্চল হবে ?
ক. ৮০ টি খ. ৯০ টি গ. ১০০ টি ঘ. ১১০টি উ: গ
০২. বাংলাদেশ কখন ওয়ানডে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ?
ক. ২০২৩ সালে খ. ২০২৭ সালে গ. ২০৩১ সালে ঘ. ২০৩৫ সালে উ: গ
০৩. বাংলাদেশ করে উচ্চ আয়ের দেশে পরিণত হলে ?
ক. ২০৩০ সালে খ. ২০৪১ সালে গ. ২০২৩ সালে ঘ. ২০৫০ সালে উ: খ
০৪. ২০২৮ সালে কোথায় অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হবে ?
ক. যুক্তরাষ্ট্র খ. জাপান গ. ফ্রান্স ঘ. চীন উ: খ
০৫. বিশ্বকাপ ফুটবলের শতবর্ষ পূর্ণ হবে কখন ?
ক. ২০২২ সালে খ. ২০২৬ সালে গ. ২০৩০ সালে ঘ. ২০৩৫ উ: খ
০৬. ২০২২ সালে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন কোন দেশে অনুষ্ঠিত হবে ?
ক. ভারত খ. ইংল্যান্ড গ. চীন ঘ. ইন্দোনেশিয়া উ: ঘ
০৭. পরবর্তী ন্যাম সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হবে ?
ক. ইন্দোনেশিয়া খ. সৌদি আরব গ. উগান্ডা ঘ. বাংলাদেশ উ: গ
০৮. ২০২২ সালে কোথায় ব্রিকস সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে ?
ক. ভারত খ. দক্ষিণ আফ্রিকা গ. চীন ঘ. রাশিয়া উ: গ
০৯. কপ -২৮ কোথায় অনুষ্ঠিত হবে ?
ক. মিসর খ. সংযুক্ত আরব আমিরাত গ. স্কটল্যান্ড ঘ. ইংল্যান্ড উ: খ
১০. ২০২৬ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের আয়োজক নয় কোন দেশটি ?
ক. যুক্তরাষ্ট্র খ. কানাডা গ. মেক্সিকো ঘ. উরুগুয়ে উ: ঘ

মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী

 ◊ মুজিববর্ষ কী ? উ: বঙ্গবন্ধু শেখ শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বছরব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি উদযাপন করাই হচ্ছে মুজিববর্ষ।
◊ মুজিববর্ষের নতুন সময়কাল কখন ? উ: ১৭ মার্চ, ২০২০ থেকে ১৬ ডিসেম্বর, ২০২১ পর্যন্ত সময়কাল করোনার কারণে বৃদ্ধি করা হয়েছে।
◊ মুজিববর্ষ কখন ঘোষণা করা হয় ? উ: ১২ জানুয়ারি, ২০১৯।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে কোন ওয়েবসাইটটি খোলা হয় ? উ: mujib100.gov.bd
◊ মুজিববর্ষের স্লোগান কী ? উ: ‘মুজিববর্ষের প্রতিশ্রুতি, আর্থিক খাতের অগ্রগতি’।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক বঙ্গবন্ধুকে কোন উপাধি প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ? উ: ডক্টর অব লজ (মরণোত্তর)।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে কোন পুরস্কার প্রবর্তন করা হয় ? উ: গ্রিন ফ্যাক্টরি অ্যাওয়ার্ড।
◊ মুজিববর্ষের লোগো’র ডিজাইনার কে ? উ: সব্যসাচী হাজরা।
◊ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটির সভাপতি কে ? উ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাঠ করা কবিতার শিরোনাম কী ? উ: ‘বাবা’।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২০২০ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলা কাকে উৎসর্গ করা হয় ? উ: বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করা হয়।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক কত ধরনের স্মারক নোট ও মুদ্রা বাজারে ছাড়ে ? উ: ৪ ধরনের।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২০০ টাকার নোট কবে বাজারে আসে ? উ: ১৮ মার্চ, ২০২০।
◊ বাংলাদেশের সাথে যৌথভাবে বৈশ্বিকভাবে এ দিবস পালনে সম্মতি জানিয়েছে কোন সংস্থা ? উ: ইউনেস্কো।
◊ ইউনেস্কো -তে কবে এ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় ? উ: ২৫ নভেম্বর ২০১৯।
◊ ইউনেস্কো’র কততম অধিবেষণে এ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় ? উ: প্যারিসে অনুষ্ঠিত ইউনেস্কোর ৪০ তম সাধারণ অধিবেষণে।
◊ মুজিববর্ষ বৈশ্বিকভাবে পালিত হবে কতটি দেশে ? উ: ১৯৩ টি দেশে।
◊ ১৭ মার্চ, ২০২০ স্মরণীয় করে রাখতে ইংল্যান্ডের কোন শহরে ‘বঙ্গবন্ধু দিবস’ পালিত হয় ? উ: সারে শহরে।
◊ যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসি’র কোন মেয়র মুজিববর্ষ পালনের ঘোষণা দেন ? উ: মুরিয়েল বোসা
◊ ১৭ মার্চ ২০২০ কোথায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দিবস পালন করা হয় ? উ: কানাডার রাজধানী অটোয়ায।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে নাইজেরিয়া স্মারক ডাকটিকেট প্রকাশ করে কবে ? উ: ২৭ আগস্ট ২০২০।
◊ মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভারতের যুদ্ধজাহাজ বাংলাদেশে শুভেচ্ছা সফরে আসে কবে ? উ: ৮-১০ মার্চ, ২০২১।
◊ মুজিবশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কবে জাতিকে শপথ পড়ান ? উ: ১৬ ডিসেম্বর, ২০২১।
◊ স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উপলক্ষে ‘মুজিব চিরন্তন’ শ্রদ্ধাস্মারক কে পেয়েছে ? উ: ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।
◊ বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী কোন সময় পর্যন্ত পালিত হবে ? উ: মার্চ, ২০২২ পর্যন্ত [করোনা মহামারির কারণে এ সময় বৃদ্ধি করা হয়]।
◊ মুজিবশতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালা কখন অনুষ্ঠিত হয় ? উ: ১৭ মার্চ -২৬ মার্চ, ২০২১ (জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিপাদ্য – মুজিব চিরন্তন)।
◊ মুজিবশতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে কোন দেশের যুদ্ধজাহাজ বাংলাদেশে শুভেচ্ছা সফরে আসে ? উ: যুক্তরাজ্য।
◊ বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে বিশ্বের কতটি দেশ অংশগ্রহণ করে ? উ: ৪ টি [ভারত, রাশিয়া, মেক্সিকো এবং ভুটান]।
◊ বিজয় দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে কোন দেশের রাষ্ট্রপতি উপস্থিত ছিলেন ? উ: ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ (১৬ ডিসেম্বর, ২০২১)।
◊ মুজিবশতবর্ষ এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান উপলক্ষে কোনদিন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত ছিলেন ? উ: ২৬ মার্চ, ২০২১।
◊ বাংলাদেশ সরকারের প্রথম সুবর্ণজয়ন্তী (৫০ বছর) পালিত কবে হয় ? উ: ১৭ এপ্রিল, ২০২১।
◊ মুজিবপিডিয়া কী ? উ: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে পূর্ণাঙ্গ ও পূর্ণমাত্রিক এনসাইক্লোপিডিয়া গ্রন্থ (গ্রন্থটির প্রধান সম্পাদক কামাল চৌধুরী, সম্পাদক ফরিদ কবির এবং নির্বাহী সম্পাদক ড. আবু মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন]।
◊ বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার কোথায় অবস্থিত? উ: ঢাকার পূর্বাচলে।
◊ কলকাতার প্রেসক্লাবে কবে ‘বঙ্গবন্ধু সংবাদপত্র কেন্দ্র’ (বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার) উদ্বোধন করা হয় ? উ: ২৮ অক্টোবর ২০২১।
◊ ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাকাশ অবলোকন কেন্দ্র’ কোথায় নির্মিত হচ্ছে ? উ: ফরিপুরের ভাঙ্গায়।
◊ কবে শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু কে বিশ্বরেকর্ড হিসেবে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ডে স্বীকৃতি দেয় ? উ: ১৬ মার্চ, ২০২১ (শস্যচিত্রে বঙ্গবন্ধু বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলায় অবস্থিত)।
◊ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব স্কয়ার কোথায় নির্মিত হচ্ছে ? উ: পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া।
◊ ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর পিস এন্ড লিবার্টি’ -এর প্রথম পরিচালক কে ? উ: অধ্যাপক ড. ফকরুল আলম।
◊ কোন নদীকে ‘বঙ্গবন্ধু মৎস্য হেরিটেজ’ ঘোষণা করা হয়েছে ? উ: হালদা নদী।
◊ সম্প্রতি (১৭ ডিসেম্বর, ২০২০) কোন দেশের রাজধানীতে বঙ্গবন্ধুর নামে সড়কের নামকরণ করা হয় ? উ: মরিশাসের রাজধানী পোর্ট লুইসে।
◊ বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের প্রস্তাবিত প্রশিক্ষণ একাডেমির নাম কী ? উ: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ফায়ার একাডেমি।
◊ ২০২১ সাল থেকে জাতিসংঘের কোন সংস্থা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে পুরস্কার প্রবর্তন করে ? উ: ইউনেস্কো।
◊ আর্থ-সামাজিক বা রাজনৈতিক পরিবর্তন সাধনে বিশেষ অবদান রাখায় ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ভারতের কোন পুরস্কারটি (মরণোত্তর) লাভ করেন ? উ: ‘গান্ধী শান্তি পুরস্কার’।
◊ হাইকোর্ট দেশের সব আদালতের এজলাস কক্ষে বঙ্গবন্ধুর ছবি টানানো এবং সংরক্ষণের নির্দেশ প্রদান করে কবে ? উ: ২৯ আগস্ট, ২০১৯।
◊ দেশের প্রথম নৌকা জাদুঘর কোথায় নির্মিত হয়েছে ? উ: বরগুনায়।
◊ জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলায় ভাষণ দেওয়ার দিনটিকে কারা ‘বাংলাদেশি ডে’ ঘোষণা করেছে ? উঃ নিউইয়র্ক স্টেট কর্তৃপক্ষ।
◊ সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ‘পয়েট অব পলিটিক্স’ নামে কোথায় সিনেমা তৈরির ঘোষণা দিয়েছে ? উ: হলিউডে।
◊ বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে নির্মিতব্য বায়োপিক ‘ বঙ্গবন্ধু’এর পরিচালক কে ? উ : শ্যাম বেনেগাল (ভারত)।
◊ হাইকোর্ট কবে ‘জয় বাংলা’ -কে রাষ্ট্রের সর্বস্তরের জাতীয় স্লোগান হিসেবে ব্যবহারের অভিমত দিয়েছে ? উ: ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯।
◊ ‘চিরঞ্জীব মুজিব’ কী ? উ: অসমাপ্ত আত্মজীবনী অবলম্বনে নির্মিত একটি চলচ্চিত্র [পরিচালক নজরুল ইসলাম]।
◊ ৭ মার্চের ভাষণকে ‘বিশ্ব ঐতিহাসিক প্রামাণ্য দলিল’ বা ‘ওয়ার্ল্ড ডকুমেন্টারি হেরিটেজ’ হিসেবে কোন আন্তর্জাতিক সংস্থা স্বীকৃতি দেয় ? উ: ইউনেস্কো (৩০ অক্টোবর, ২০১৭)।

 বঙ্গবন্ধুর স্মরণে রাষ্ট্রীয় দিবসসমূহ

◊ জাতীয় বীমা দিবস – ১ মার্চ, ১৯৬০ সালে এই দিনে বঙ্গবন্ধু একটি বীমা কোম্পানিতে যোগদান করেন।
◊ ঐতিহাসিক দিবস – ৭ মার্চ, ১৯৭১ সালে এই দিনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঐতিহাসিক ভাষণ দেন ।
◊ জাতীয় শিশু দিবস – ১৭ মার্চ – ১৯২০ সালে এই দিনে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন।
◊ জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস – ৩ এপ্রিল – ১৯৫৭ সালে এই দিনে চলচ্চিত্র আইন পাশ করান।
◊ জাতীয় চা দিবস – ৪ জুন – ১৯৫৭ সালে এই দিনে বাঙালি চেয়ারম্যান হিসেবে চা বোর্ডে যোগ দেন।
◊ জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবস – ৯ আগস্ট – ১৯৭৫ সালে এই দিনে রাষ্ট্রীয় মালিকানায় জ্বালানি কার্যক্রম উদ্বোধন করেন।
◊ জাতীয় শোক দিবস – ১১৫ আগস্ট – ১৯৭৫ সালে এই দিনে বিপথগামী সেনাসদস্যের হাতে সপরিবারে নিহত হন।
◊ শেখ রাসেল দিবস – ১৮ অক্টোবর – ১৯৬৪ সালে এই দিনে বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেল জন্মগ্রহণ করে।

অনুশীলন

০১. বঙ্গবন্ধুর নামে কোন আন্তর্জাতিক সংস্থা পুরস্কার প্রবর্তন করেছে ?
ক. ইউনেস্কো খ. আঙ্কটাড গ. জাতিসংঘ ঘ. ডব্লিউটিও উ: ক
০২. কতটি দেশ মুজিববর্ষ পালন করেছে ?
ক. ১৯১ টি খ. ১৯২ টি গ. ১৯৩ টি ঘ. ১৯৫ টি উ: গ
০৩. হাইকোর্ট কবে ‘জয় বাংলা’ -কে রাষ্ট্রের সর্বস্তরের জাতীয় স্লোগান হিসেবে ব্যবহারের অভিমত দিয়েছে ?
ক. ১৭ মার্চ ২০১৯ খ. ২৫ নভেম্বর ২০১৯ গ. ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ঘ. ১০ জানুয়ারি ২০২০ উ: গ
০৪. ইউনেস্কো করে ৭ মার্চের ভাষণকে ‘বিশ্ব ঐতিহাসিক প্রামাণ্য দলিল’ বা ‘ওয়ার্ল্ড ডকুমেন্টারি হেরিটেজ’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ?
ক. ৩০ অক্টোবর ২০১৭ খ. ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ গ. ৭ মার্চ ২০১৯ ঘ. ১০ জানুয়ারি ২০২০ উ: ক
০৫. বঙ্গবন্ধুকে ‘ফ্রেন্ড অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্ববন্ধু’ উপাধি দেওয়া হয় কবে ?
ক. ১০ জুলাই ২০১৯ খ. ৫ আগস্ট ২০১৯ গ. ১৫ আগস্ট ২০১৯ ঘ. ১০ জানুয়ারি ২০২০ উ: গ
 

◊◊◊ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে mujib100.parliament.gov.bd ওয়েবসাইট চালু করা হয় ৩১ জানুয়ারি ২০২১

করোনা ভাইরাস (কোভিড -১৯)

 ◊ করোনা শব্দের উৎপত্তি: প্রাচীন গ্রিক শব্দ করোন (Korone) থেকে সপ্তদশ শতকে ল্যাটিন ভাষায় যুক্ত হয় করোনা (Korona) শব্দটি।
◊ প্রথম সন্ধান: ১৯৩০ এর দশকে করোনা ভাইরাসের সন্ধান মিলে।
◊ মানব দেহে প্রথম শনাক্ত: ১৯৬০ সালে।
◊ করোনা ভাইরাসের কারণে সৃস্ট রোগটির নাম: ‘কোভিড -১৯’।
◊ নাম নির্দেশক: COVID-19 এর CO দিয়ে Corona, VI দিয়ে Virus, D দিয়ে Disease. আর ভাইরাস ছড়ানোর সময় হিসেবে 19 (2019) সালকে চিহ্নিত করা হয়েছে।
◊ ‘কোভিড -১৯’ এর প্রথম সংক্রমণ: চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ করোভাইরাস গোত্রের সপ্তম প্রজাতির প্রথম শনাক্ত।
◊ ‘কোভিড -১৯’ নামকরণ: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ এ রোগটিকে ‘কোভিড -১৯’ নামকরণ করে।
◊ প্রথম মৃত্যু: ৯ জানুয়ারি ২০২০ চীনে প্রথম এ রোগে মৃত্যু হয়।
◊ প্রথম জরুরি অবস্থা জারি: ২০ জানুয়ারি ২০২০ চীন প্রথম জরুরি অবস্থা জারি করে।
◊ বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা জারি: ৩০ জানুয়ারি ২০২০ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা জারি করে।
◊ বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা: ১১ মার্চ ২০২০ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এ রোগকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করে।
◊ চীনের বাইরে প্রথম শনাক্ত: ১৩ জানুয়ারি ২০২০ থাইল্যান্ডে।
◊ প্রথম ভ্যাকসিন : ১২ আগস্ট রাশিয়া কোভিড -১৯ এর ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী প্রথম দেশ হিসেবে নথিভুক্ত হয়। রাশিয়ার প্রস্তুতকৃত ভ্যাকসিনের নাম ‘স্পুটনিক-ভি’ ।
◊ বায়োটেক ফাইজার (Pfizer BioNTech): বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে যুক্তরাজ্য ২ ডিসেম্বর, ২০২০ করোনার ভ্যাকসিন (ফাইজার বায়োটেক) ব্যবহারের সবুজ সংকেত/অনুমতি দেয়। ৭ ডিসেম্বর, ২০২০ বিশ্বের প্রথম ব্যক্তি হিসেবে অনুমোদিত ভ্যাকসিন গ্রহণ করেন/প্রয়োগ করা হয় ব্রিটেনের ৯০ বছরের মার্গারেট কিন্যান এর শরীরে।
◊ বাংলাদেশে ‘কোভিড -১৯’
প্রথম শনাক্ত: ৮ মার্চ ২০২০
প্রথম মৃত্যু: ১৮ মার্চ ২০২০
লকডাউন শুরু: ২৬ মার্চ ২০২০
◊ জিন-নকশা উম্মোচন: ড. সেজুতি সাহা এবং তার বাবা অধ্যাপক সমীর সাহা যৌথভাবে করোনাভাইরাসের জিন-নকশা উন্মোচন করেন।
◊ বাংলাদেশে ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি: গ্লোব ফার্মাসিউটিক্যালসের সহযোগী প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক লিমিডেট। গ্লোব বায়োটেক লিমিডেট এর আবিষ্কৃত ভ্যাকসিনের নাম ‘বঙ্গভ্যাক্স’ (পূর্বনাম- ‘ব্যানকোভিড’)।
◊ প্রথম ট্রায়াল চীন বাংলাদেশে কোভিড -১৯ এর ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি পাওয়া প্রথম দেশ।
◊ বাংলাদেশে করোনার টিকাদান কর্মসূচী: ২১ জানুয়ারি ২০২১ বাংলাদেশে আসে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত ‘কোভিশিল্ড’ নামক ২০ লাখ ডোজ টিকা। ২৭ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি এ টিকা প্রয়োগের উদ্বোধন করেন । প্রথম টিকা গ্রহণ করেন কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তা। ৮ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়।
◊ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এ পর্যন্ত কয়টি টিকা ব্যবহারের অনুমোদন করেছে ? উ: ৮ টি [অষ্টম টিকার উদ্ভাবক দেশ ভারত (নাম- কোভ্যাক্সিন)]।
◊ সম্প্রতি কোন দেশ করোনায় আক্রান্তদের চিকিৎসায় প্রথমবারের মতো ট্যাবলেট ব্যবহারের অনুমোদন দেয় ? উ: যুক্তরাজ্য ট্যাবলেটটির নাম- মলনুপিরাভির]।
◊ দেশে করোনা চিকিৎসায় মলনুপিরাভির অ্যান্টিভাইরাল ট্যাবলেটের জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন করে দেওয়া হয় ? উ: ৮ নভেম্বর, ২০২১।
◊ ১৬ আগস্ট ২০২১ দেশে করোনার টিকা উৎপাদনের জন্য কাদের মধ্যে চুক্তি হয় ? উ: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, ইনসেপ্টা ভ্যাকসিন লিমিটেড এবং চীনের সিনোফার্মের মধ্যে।
◊ দেশের বাইরে কোথায় করোনা ভাইরাসে প্রথম বাংলাদেশি মারা যান ? উ: যুক্তরাষ্ট্রে (সবচেয়ে বেশি সৌদি আরবে)।
◊ করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়ে বাংলাদেশ সম্প্রতি কোন দেশের সাথে চুক্তি করেছে ? উঃ রাশিয়া।
◊ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোতে করোনা ভাইরাসের টিকা দ্রুত সরবরাহ করার উদ্দেশ্যে চীনের নেতৃত্বে দক্ষিণ এশিয়ার ৫ টি [পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলংকা, আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশ] দেশ নিয়ে গঠিত জোটের নাম কি ? উ: ইমারজেন্সি কোভিড ভ্যাকসিন স্টোরেজ ফ্যাসিলিটি।
◊ করোনা ভাইরাসের সর্বশেষ ভ্যারিয়েন্ট কোনটি ? উ: অমিক্রন [ দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয়।]

অনুশীলন

০১. ‘কোভিড -১৯’ এর সংক্রমণ প্রথম হয় কোন দেশে ?
ক. চীন খ. যুক্তরাষ্ট্র গ. রাশিয়া ঘ. ভারত উ: ক
০২. ‘কোভিড -১৯’ এর প্রথম সংক্রমণ কবে হয় ?
ক. ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯ খ. ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ গ. ২০ জানুয়ারি ২০২০ ঘ. ৩০ জানুয়ারি ২০২০ উ: খ
০৩. করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট রোগটি নামকরণ ‘কোভিড -১৯’ করে কোন সংস্থা ?
ক. বিশ্ব খাদ্য সংস্থা খ. আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা গ.বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ঘ. বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা উ: গ
০৪. বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কোভিড -১৯ এর কারণে কবে বৈশ্বিক জরুরি জারি করে ?
ক. ১৩ জানুয়ারি ২০২০ খ. ২০ জানুয়ারি ২০২০ গ. ৩০ জানুয়ারি ২০২০ ঘ. ১১ মার্চ ২০২০ উ: গ
০৫. চীনের বাইরে প্রথম কোন দেশে কোডিড -১৯ শনাক্ত হয় ?
ক. রাশিয়া খ. থাইল্যান্ড গ. সিঙ্গাপুর ঘ. ফ্রান্স উ: খ
০৬. ‘কোভিড -১৯’ এর কারণে বাংলাদেশে প্রথম মৃত্যু হয় কবে ?
ক. ৮ মার্চ ২০২০ খ. ১৮ মার্চ ২০২০ গ. ২৬ মার্চ ২০২০ ঘ. ১০ এপ্রিল ২০২০ উ: খ
০৭. বাংলাদেশে কোভিভ -১৯ এর ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি পাওয়া প্রথম দেশ কোনটি ?
ক. ভারত খ. রাশিয়া গ. চীন ঘ. যুক্তরাজ্য উঃ গ
০৮. কোভিড -১৯ এর ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী হিসেবে প্রথম নথিভুক্ত হয় কোন দেশ ?
ক. ভারত খ. রাশিয়া গ. চীন ঘ. যুক্তরাজ্য উ: খ
০৯. রাশিয়া কবে কোডিড -১৯ এর ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী দেশ হিসেবে নথিভুক্ত হয় ?
ক. ১০ জুলাই ২০২০ খ. ১২ আগস্ট ২০২০ গ. ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ঘ. ৫ অক্টোবর ২০২০ উ: খ
১০. রাশিয়ার প্রস্তুতকৃত কোভিড -১৯ এর ভ্যাকসিনের নাম কি ?
ক. পুতিন -১৯ খ. ভ্যাকসিন -১ গ. ওয়ার্ল্ড ফার্স্ট ঘ. স্পুটনিক – ভি উ: ঘ
 

আলোচিত গ্রন্থ ও চলচ্চিত্র

 সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত কিছু গ্রন্থ

 
গ্রন্থ – রচয়িতা – বিশেষত্ব
◊ Promise to keep – জো বাইডেন (যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬ তম প্রেসিডেন্ট) – আত্মজীবনী।
◊ The Truth We Hold – মলা হ্যারিস (যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট) – আত্মজীবনী।
◊ A Promise Land – বারাক ওবামা (যুক্তরাষ্ট্রের ৪৪ তম প্রেসিডেন্ট) – প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন বিভিন্ন ঘটনার স্মৃতিচার।
◊ How to Avoid a climate Disaster – বিল গেটস।
◊ ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি – মাইকেল ওলফ – ডোনাল্ড ট্রাম্প ও হোয়াইট হাউসের বিভিন্ন তথ্য।
◊ দ্য প্যারাডাইস – অ্যাভারনো আবদুল রাজাক গুরনাহ – ২০২১ সালে সাহিত্যে নোবেল জয় করেন।
◊ আভ্যারনো – লুইস গ্লাক (২০২০ সালে সাহিত্যে নোবেল বিজয়ী) – ২০২০ সালে নোবেল সাহিত্য পুরস্কার পান।
◊ অসমাপ্ত আত্মজীবনী – শেখ মুজিবুর রহমান – বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ।
◊ কারাগারের রোজনামচা – শেখ মুজিবুর রহমান – বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ।
◊ আমার দেখা নয়াচীন – শেখ মুজিবুর রহমান – বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ।
◊ আমার কিছু কথা – শেখ মুজিবুর রহমান – এটি একটি ভাষণ, বক্তৃতা ও উপদেশ সংকলন।
অসমাপ্ত আত্মজীবনী
◊ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনীমূলক প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থ কোনটি ? অসমাপ্ত আত্মজীবনী।
◊ বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী প্রথম প্রকাশিত হয় কখন ? উ: ১৮ জুন, ২০১২ [প্রকাশক- দ্য ইউনিভার্সিটি প্রেস লি.]।
◊ অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র ইংরেজি অনুবাদক কে ? উ: অধ্যাপক ফখরুল আলম।
◊ এ পর্যন্ত অসমাপ্ত আত্মজীবনী প্রকাশ পেয়েছে- ১৬ টি ভাষায় (বাংলা, ইংরেজি, হিন্দি, উর্দু, জাপানি, চৈনিক, আরবি, ফরাসি, তুর্কি, স্প্যানিশ, অসমীয়া, নেপালি, রুশ, ইতালিয়ান, মালয় এবং মারাঠি)। মনে রাখতে হবে, অনূদিত হয় ১৫ টি ভাষায়। গ্রন্থটি সর্বশেষ মারাঠি ভাষায় অনূদিত হয়। মারাঠি ভাষায় অনূদিত গ্রন্থটির নাম দেওয়া হয় ‘অপূর্ণ আত্মকথা’।
◊ ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র ব্রেইল সংস্করণের মোড়ক উম্মোচন করেন – মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা (৭ অক্টোবর ২০২০)
◊ ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ গ্রন্থকে ভিত্তি করে নির্মিত চলচ্চিত্রের নাম কি ? উ: চিরঞ্জীব মুজিব [কাহিনীকার- শেখ হাসিনা এবং পরিচালক নজরুল ইসলাম]
কারাগারের রোজনামচা
◊ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থের দ্বিতীয় খণ্ডের নাম কি ? উ: কারাগারের রোজনামচা
◊ প্রেক্ষাপট- বঙ্গবন্ধুর ১৯৬৬-১৯৬৮ সাল পর্যন্ত কারাস্মৃতি ও ১৯৬৬-৬৮ এর উত্তাল রাজনৈতিক বিষয়াবলি
◊ গ্রন্থটি লেখার সময়কাল – দুই বছর।
◊ প্রকাশ – বঙ্গবন্ধুর ৯৮ তম জন্মদিনে (১৭ মার্চ ২০১৭)।
◊ প্রকাশক – বাংলা একাডেমি।
◊ ইংরেজি অনুবাদক- অধ্যাপক ড. ফকরুল আলম।
◊ ‘কারাগারের রোজনামচা’ নামটির প্রস্তাবক- শেখ রেহানা।
◊ কারাগারের রোজনামচা মোট ৫ টি ভাষায় প্রকাশ পায় (বাংলা, ইংরেজি, অসমিয়া, নেপালি এবং ফরাসি)। অনূদিত হয় ৪ টি ভাষায়।
◊ ‘কারাগারের রোজনামচা’র ফরাসি অনুবাদক- অধ্যাপক ফিলিপে বেনোয়া।
আমার দেখা নয়া চীন
আমার দেখা নয়া চীন আদতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গণচীন ভ্রমণের অভিজ্ঞতার আলোকে লেখা একটি ডায়েরির পুস্তকি রূপ। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষকে কেন্দ্র করে বাংলা একাডেমি অমর একুশে গ্রন্থমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে (২ ফেব্রুয়ারি ২০২০) বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। বইটি সম্পাদনা করেছেন বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ও লোক গবেষক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। বইটিরও গ্রন্থস্বত্ব থাকছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরোরিয়াল ট্রাস্ট – এর নামে। ১৯৫২ সালের ২-১২ই অক্টোবরে গণচীনের পিকিংয়ে এশীয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশগুলোর প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি শান্তি সম্মেলনের আয়োজন করা হয় এবং সেখানে বঙ্গবন্ধু পূর্ব বাংলার প্রতিনিধিত্ব করেন। বইটি ১৯৫৪ সালে বঙ্গবন্ধু কারাগারে থাকা অবস্থায় লিখেছেন। উল্লেখ্য যে পূর্বে এই বইটি নয়া চীন ভ্রমণ নামে প্রকাশের কথা ছিল। আমার দেখা নয়াচীন বইটির প্রচ্ছদে ব্যবহৃত হয়েছে পাবলো পিকাসোর বিখ্যাত ‘শান্তির কপোত’ চিত্রশিল্প। গ্রন্থটির লোগো করেন রফিকুন নবী। গ্রন্থটির প্রচ্ছদ ও নকশা করেন তারিক সুজাত। এ গ্রন্থটির ভূমিকা লিখেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বইটি ইংরেজি অনুবাদক অধ্যাপক ড. ফকরুল আলম।
→ Home in the World : A Memoir গ্রন্থটির রচয়িতা কে ? উ: অমর্ত্য সেন [স্মৃতিকথা]।
→ State of Terror কী ? উ: সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের প্রথম উপন্যাস।
→ The Startup Wife কার লেখা বই ? উ: তাহমিনা আনাম।
→ WHEAREABOUTS গ্রন্থের লেখিকা কে ? উ: ঝুম্পা লাহিড়ী।
→ The Presidential Years কী ? উ: ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীর আত্মজীবনী।
→ দারিদ্র্যের অর্থনীতি গ্রন্থটি কে লিখেছেন ? উ: আকবর আলী খান।
→ ‘নেতা মোদের শেখ মুজিব’ গ্রন্থের রচয়িতা কে ? উ : আসাদুজ্জামান খান।
→ No Time to Die কী ? উ : জেমস বন্ড সিরিজের ২৫ তম চলচ্চিত্র।
→ প্রথম বাংলাদেশি ছবি হিসেবে কোন ছবিটি কানের অফিসিয়াল সিলেকশনের জন্য আমন্ত্রণ পায় ? উ: ‘রেহেনা মরিয়ম নূর’ [পরিচালক আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ, কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন- আজমেরী হক বাধন]।
→ ‘মুজিব আমার পিতা’ কী ? উ: একটি অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র [পরিচালক সোহেল রানা]।
→ ‘লোনা জলের কাব্য’ কী ? উ: জলবায়ু পরিবর্তনের প্রেক্ষাপটের ওপর নির্মিত একটি চলচ্চিত্র]।

অনুশীলন

০১. A Promise Land গ্রন্থের রচয়িতা কে ?
ক. ডোনাল্ড ট্রাম্প খ. বারাক ওবামা গ. বিল ক্লিনটন ঘ. জো বাইডেন উ: খ
02. Promise to keep গ্রন্থের রচয়িতা কে ?
ক. ডোনাল্ড ট্রাম্প খ. বারাক ওবামা গ. বিল ক্লিনটন ঘ. জো বাইডেন উ: ঘ
০৩. ‘ফায়ার অ্যান্ড ফিউরি’ গ্রন্থের রচয়িতা কে ?
ক. ডোনাল্ড ট্রাম্প খ. লুইস গ্লাক গ. মাইকেল ওলফ ঘ. জো বাইডেন উ: গ
০৪. ‘অ্যাভারনো’ গ্রন্থের রচয়িতা কে?
ক. ডোনাল্ড ট্রাম্প খ. লুইস গ্লাক গ. মাইকেল ওলফ ঘ. জো বাইডেন উ: খ
05. The Truth We Hold গ্রন্থের রচয়িতা কে ?
ক. কমলা হ্যারিস খ. বারাক ওবামা গ. বিল ক্লিনটন ঘ. জো বাইডেন উ: ক
০৬. ‘কারাগারের রোজনামচা’ নামটির প্রস্তাবক কে ?
ক. শেখ রেহেনা খ. শেখ হাসিনা গ. ড . ফখরুল ঘ. তোফায়েল আহমদ উ: ক
০৭. ‘আমার দেখা নয়া চীন’ বইটির প্রকাশক কে ?
ক. বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ট্রাস্ট খ. বাংলা একাডোম গ. এশিয়াটিক সোসাইটি ঘ. বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্র উ: খ
০৮. অসমাপ্ত আত্মজীবনী এ পর্যন্ত কতটি ভাষায় অনূদিত হয়েছে ?
ক. ১০ টি খ. ১১ টি গ. ১২ টি ঘ. ১৫ টি উ: ঘ
 
Recent General Knowledge in University Admission Tests Part 01Recent General Knowledge in University Admission Tests Part 01
Recent General Knowledge in University Admission Tests Part 01

বিভিন্ন রিপোর্ট/জরিপ/সমীক্ষায় বর্তমান বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান

রিপোর্ট/জরিপ/সমীক্ষা → বাংলাদেশের অবস্থান

◊ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে, ইলিশ উৎপাদনে, জাহাজ রিসাইকেলকরণে (ডাঙায়), দ্রুত সম্পদ বৃদ্ধিকারী, পাট রপ্তানিতে → প্রথম
◊ পাট উৎপাদনে, কাঁঠাল উৎপাদনে, ছাগলের দুধ উৎপাদনে → দ্বিতীয়
◊ পোশাক রপ্তানিতে, ধান উৎপাদনে, সবজি উৎপাদনে, স্বাদুপানির মাছ উৎপাদনে এবং পেঁয়াজ উৎপাদনে → তৃতীয়
◊ চাল উৎপাদনে, মাছ উৎপাদনে, ছাগল উৎপাদনে → চতুর্থ
◊ বৈশ্বিক নবায়নযোগ্য শক্তি ও কর্মসংস্থানে , ছাগলের গোশত উৎপাদনে → পঞ্চম
◊ আলু উৎপাদনে, আম উৎপাদনে, রেমিটেন্স আয়ে (শীর্ষ দেশ ভারত) → সপ্তম
◊ জনশক্তি ও বাইসাইকেল রপ্তানিতে, পেয়ারা উৎপাদনে বিশ্বে জনসংখ্যায় (শীর্ষ দেশ চীন) → অষ্টম
◊ উদীয়মান অর্থনীতির দেশের অর্থনৈতিক সক্ষমতায় (শীর্ষ দেশ বতসোয়ানা) → নবম
◊ মৌসুমী ফল উৎপাদনে → দশম
◊ গরু পশু উৎপাদনে (শীর্ষ দেশ ব্রাজিল), দুর্নীতির ধারণা সূচক ২০২১ → ১২ তম
◊ পেঁপে উৎপাদনে → ১৪ তম
◊ শিশুদের জলবায়ু ঝুঁকি সূচক (শীর্ষ ঝুঁকিপূর্ণ মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র) → ১৫ তম
◊ বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদ (শীর্ষ দেশ আফগানিস্তান) → ৩৩ তম
◊ জাতীয় সাইবার নিরাপত্তা সূচক ২০২১ (শীর্ষ দেশ গ্রিস, নিম্ন দেশ দক্ষিণ সুদান) → ৩৯ তম
◊ ব্যয়বহুল শহরের তালিকা (শীর্ষ শহর তুর্কমেনিস্তানের আশখাবাদ) → ঢাকা ৪০ তম
◊ বৈশ্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন (শীর্ষ দেশ যুক্তরাষ্ট্র) → ৪১ তম
◊ বিশ্ব সামরিক শক্তিতে (শীর্ষ দেশ যুক্তরাষ্ট্র) → ৪৫ তম
◊ বৈশ্বিক সাইবার নিরাপত্তা সূচক (শীর্ষ দেশ- যুক্তরাষ্ট্র) → ৫৩ তম
◊ নিরাপদ নগরী সূচক ২০২১ (শীর্ষ নিরাপদ নগরী কোপেনহেগেন, অনিরাপদ নগরী ইয়াঙ্গুন) → ঢাকা ৫৪ তম
◊ বিশ্ব সুখ প্রতিবেদন ২০২১ (শীর্ষ দেশ ফিনল্যান্ড) → ৬৮ তম
◊ বৈশ্বিক ক্ষুধা সূচকে → ৭৬ তম
গণতন্ত্র সূচক ২০২১ (শীর্ষ দেশ নরওয়ে) → ৭৬ তম
◊ বৈশ্বিক সামাজিক উত্তরণে (শীর্ষ দেশ ডেনমার্ক) → ৭৮ তম
◊ ডিজিটাল বুদ্ধিমত্তা সূচক (শীর্ষ দেশ সিঙ্গাপুর) → ৮৩ তম
◊ বৈশ্বিক খাদ্য নিরাপত্তা সূচক ২০২১ (শীর্ষ দেশ ফিনল্যান্ড) → ৮৪ তম
◊ বৈশ্বিক শান্তি সূচক (শীর্ষ দেশ- আইসল্যান্ড) → ৯১ তম
◊ জ্বালানি খাতের উন্নয়নে (শীর্ষ দেশ সুইজারল্যান্ড) → ৯৪ তম
◊ ডিজিটাল জীবনমান সূচক ২০২১ (শীর্ষ দেশ ডেনমার্ক, নিম্ন দেশ ইথিওপিয়া) → ১০৩ তম
◊ হেনলি পাসপোর্ট সূচক (শীর্ষ দেশ জাপান ও সিঙ্গাপুর) → ১০৮ তম
◊ টেকসই উন্নয়ন প্রতিবেদন ( শীর্ষ দেশ ফিনল্যান্ড) → ১০৯ তম
◊ ই-কমার্স সূচক ২০২১ (শীর্ষ দেশ সুইজারল্যান্ড) → ১১৫ তম
◊ বৈশ্বিক উদ্ভাবন সূচক ২০২১ (শীর্ষ দেশ সুইজারল্যান্ড, নিম্ন দেশ অ্যাঙ্গোলা) → ১১৬ তম
◊ ই-গভর্নমেন্ট ডেভেলপমেন্ট সূচকে (শীর্ষ দেশ ডেনমার্ক) → ১১৯ তম
◊ অর্থনৈতিক স্বাধীনতা সূচকে (শীর্ষ দেশ সিঙ্গাপুর) → ১২২ তম
◊ মানবসম্পদ বা মানব পুঁজি সূচকে (শীর্ষ দেশ সিঙ্গাপুর) → ১২৩ তম
◊ আইনের শাসন সূচক (শীর্ষ দেশ ডেনমার্ক, নিম্নদেশ ভেনিজুয়েলা) → ১২৪ তম
◊ মানব উন্নয়ন সূচকে (শীর্ষ দেশ নরওয়ে), নিম্ন দেশ- নাইজার
[প্রকাশকারী: জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি ( ইউানেডিপি)] → ১৩৩ তম
◊ বিশ্বের বাসযোগ্য শহর (শীর্ষ শহর নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড) → ঢাকা ১৩৭ তম
◊ মাথাপিছু আয়ে ধনী দেশ সূচক (শীর্ষ দেশ- লুক্সেমবার্গ) → ১৪০ তম
◊ জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক হাই কমিশনার কর্তৃক প্রকাশিত তথ্যমতে, বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বেশি বাস্তুচ্যূত মানুষের সংখ্যা কোন দেশের ? উ: সিরিয়া (৬.৬ মিলিয়ন) এবং সবচেয়ে বেশি শরণার্থী আশ্রয়দানকারী দেশ তুরস্ক (৩.৭ মিলিয়ন)।
◊ প্রবাসী আয়ে বর্তমান বিশ্বে শীর্ষ দেশ কোনটি ? উঃ ভারত (বাংলাদেশের অবস্থান ২৩ তম)।
◊ বিশ্ব গণমাধ্যম সূচকে ১৮০ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থান কততম ? উ: ১৫২ তম (শীর্ষ দেশ নরওয়ে, নিম্ন দেশ ইরিত্রিয়া)।
◊ বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ভাষার দেশ কোনটি ? উ : পাপুয়া নিউগিনি।
◊ চীনের Hurun এর প্রতিবেদন অনুযায়ী বর্তমান বিশ্বেও শীর্ষ ধনী কে ? উ: দক্ষিণ আফ্রিকার ইলন মাস্ক।
◊ ফোর্বস এর তথ্যমতে, বর্তমান বিশ্বে সেরা কর্মীবান্ধব কোম্পানি কোনটি ? উ: দক্ষিণ কোরিয়ার স্যামসাং।
◊ বিশ্বব্যাংকের তথ্যমতে, বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স অর্জনকারী দেশ কোনটি ? উ: ভারত (বাংলাদেশের অবস্থান- ৮ম)।
◊ এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক এবং আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, কর্মসংস্থান হারানো তরুণদেও দিক থেকে শীর্ষ দেশ কোনটি ? উ: বাংলাদেশ।
◊ কার্বন নির্গমনে বর্তমান বিশ্বেও শীর্ষ দেশ কোনটি ? উ: চীন [দ্বিতীয় যুক্তরাষ্ট্র, তৃতীয় ভারত]।
◊ মাথাপিছু কার্বন নির্গমনে বর্তমান বিশ্বেও শীর্ষ দেশ কোনটি ? উ: যুক্তরাষ্ট্র।
◊ টানা পঞ্চমবারের মতো বিশ্বেও শীর্ষ বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে – বাংলাদেশের ব্র্যাক

কৃষি পণ্য বাংলাদেশের কৃষিজ সম্পদ

 কৃষি বিষয়ক বিভিন্ন জরিপে বর্তমান বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান
 ◊ ইলিশ উৎপাদনে, পাট রপ্তানিতে → প্রথম
◊ পাট উৎপাদনে, কাঁঠাল উৎপাদনে, ছাগলের দুধ উৎপাদনে → দ্বিতীয়
◊ ধান উৎপাদনে, সবজি উৎপাদনে, স্বাদুপানির → তৃতীয়
◊ মাছ উৎপাদনে, মাছ উৎপাদনে, ছাগল উৎপাদনে, ছাগলের গোশত উৎপাদনে → চতুর্থ
◊ আলু উৎপাদনে, আম উৎপাদনে → সপ্তম
◊ পেয়ারা উৎপাদনে → অষ্টম
◊ মৌসুমী ফল উৎপাদনে → দশম
◊ গরু পশু উৎপাদনে → ১২ তম
◊ পেঁপে উৎপাদনে → ১৪ তম

কৃষিজ পণ্য উৎপাদনে বর্তমানে দেশের শীর্ষ জেলা

কৃষি পণ্য → উৎপাদনে শীর্ষ জেলা
◊ ধান → ময়মনসিংহ, গম → ঠাকুরগাঁও, পাট ও মসুর → ফরিদপুর
◊ আম → রাজশাহী আখ/ইক্ষু → নাটোর, আনারস → টাঙ্গাইল
◊ ভুট্টা ও লিচু → দিনাজপুর, তুলা → ঝিনাইদহ, কলা ও কাঁঠাল → নরসিংদী
◊ পেঁয়াজ → পাবনা, আলু → বগুড়া, আদা ও কমলা → রাঙামাটি
◊ গোলাপ ফুল → যশোর, চা → মৌলভীবাজার, তামাক → কুষ্টিয়া
◊ সয়াবিন ও সুপারি → লক্ষ্মীপুর, নারকেল ও তরমুজ → ভোলা, পেয়ারা → পিরোজপুর

ষষ্ঠ কৃষিশুমারি ২০১৯ এবং প্রাথমিক প্রতিবেদন

◊ ৬ষ্ঠ (স্বাধীন বাংলাদেশে ৫ ম) কৃষি শুমারি অনুষ্ঠিত হয় → ৯ জুন -২০ জুন ২০১৯।
◊ স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম কৃষিশুমারি অনুষ্ঠিত হয় → ১৯৭৭ সালে।
◊ স্লোগান: কৃষি শুমারি সফল করি , সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ি।
◊ দেশে কৃষি শুমারি অনুষ্ঠিত হয় → ১০ বছর পরপর।
◊ দেশে প্রথম কৃষি শুমারি অনুষ্ঠিত হয় → ১৯৬০ সালে।
◊ দেশে পূর্ণাঙ্গ কৃষি শুমারি অনুষ্ঠিত হয় → ২০০৮ সালে।
◊ কৃষি শুমারি পরিচালনা করে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)

আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার

◊ দেশে বর্তমানে ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য কয়টি ? উ: ৯ টি (১. জামদানি, ২. ইলিশ, ৩. ক্ষীরশাপাতি, ৪. ঢাকাই মসলিন, ৫ . রাজশাহীর সিল্ক, ৬. শতরঞ্জি, ৭. চিনিগুঁড়া চাল, ৮. দিনাজপুরের কাটারিভোগ এবং ৯. বিজয়পুরের সাদা মাটি (বাংলাদেশের প্রথম জিআই পণ্য জামদানি শাড়ী সনদ লাভ কওে ১৭ নভেম্বর, ২০১৬ এবং রাজশাহীর ফজলি আম ও বাংলাদেশের বাগদা চিংড়ি খুব তাড়াতাড়ি জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে)।
◊ সম্প্রতি কারা ডলফিন ও কার্প জাতীয় মাছের জীবনরহস্য উম্মোচন করেন ? উ: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের হালদা রিভার রিসার্স ল্যাবরেটরি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক।
◊ দেশে এক গাছে পাঁচবার ধান ফলনের একটি নতুন জাত উদ্ভাবন করেছেনে কে ? উ: অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী ধান গবেষক ও জিনবিজ্ঞানী আবেদ চৌধুরী।
◊ ‘সদাই’ কী ? কৃষিপণ্য বিপণনে একটি অ্যাপ।
◊ সম্প্রতি ৬ টি নতুন জাতের ধান উদ্ভাবন করেন কে ? উ: খুলনার কৃষক আরুণি সরকার।
◊ সম্প্রতি বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট চতুর্থ প্রজন্মের কোন রুই মাছ উদ্ভাবন করেন ? উ: সুবর্ণ রুই।
◊ বর্তমানে সুন্দরবনে কত প্রজাতির উদ্ভিদ পাওয়া যায় ? উ: ৩৩৪ প্রজাতির।
◊ দেশে বর্তমানে সামুদ্রিক মাছের সংখ্যা কত ? উ: ৭৪০ টি।
◊ বাংলাদেশে উদ্ভাবিত কফির প্রথম জাতের নাম কী ? উ: বারি কফি -১ & ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০।
◊ ময়মনসিংহে অবস্থিত বাংলাদেশে মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটে স্থাপিত হয়েছে – দেশের প্রথম মাছের জিন ব্যাংক।
◊ মৎস্য উৎপাদনে দেশের সেরা জেলা কোনটি ? উ: ময়মনসিংহ, যশোর ও কুমিল্লা।
◊ ১ অক্টোবর ২০২০ ‘বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট’ (BRRI) এর সুবর্ণজয়ন্তী (৫০ বছর) পালিত হয়। ১ অক্টোবর ১৯৭০ সালে গাজীপুরে এ প্রতিষ্ঠানটি প্রতিষ্ঠিত হয়।

অনুশীলন

 ০১. বর্তমান বিশ্বে ইলিশ উৎপাদনে শীর্ষ দেশ কোনটি ?
ক. ভারত খ. মিয়ানমার গ. মালদ্বীপ ঘ. বাংলাদেশ উ: ঘ
০২. সম্প্রতি ‘বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট’ (BRRI) এর প্রতিষ্ঠার কত বছর পূর্ণ হলো ?
ক. ২৫ বছর খ. ৫০ বছর গ. ৭৫ বছর ঘ. ১০০ বছর উ: খ
০৩. দেশের প্রথম মাছের জিন ব্যাংক উদ্বোধন করা হয় কবে ?
ক. ১০ আগস্ট ২০২০ খ. ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ গ. ৮ অক্টোবর ২০২০ ঘ. ১০ নভেম্বর ২০২০ উ: খ
০৪. ২০১৯ সালে দেশে কততম কৃষিশুমারি অনুষ্ঠিত হয় ?
ক. ৫ম খ. ৬ষ্ঠ গ. ৭ম ঘ. ৮ম উ: খ
০৫. স্বাধীন বাংলাদেশে কবে প্রথম কৃষিশুমারি অনুষ্ঠিত হয় ?
ক. ১৯৭২ খ. ১৯৭৩ গ. ১৯৭৪ ঘ. ১৯৭৭ উ: ঘ
০৬. কত বছর পরপর কৃষিশুমারি অনুষ্ঠিত হয় ?
ক. ৫ বছর খ. ৭ বছর গ. ১০ বছর ঘ. ১২ বছর উ: গ
০৭. দেশে পূর্ণাঙ্গ কৃষিশুমারি অনুষ্ঠিত হয় কবে ?
ক. ১৯৬০ সালে খ. ১৯৭৭ সালে গ. ১৯৮৪ সালে ঘ. ২০০৮ সালে উ: ঘ
০৮. দেশে বর্তমানে জিআই পণ্য কয়টি ?
ক. ৭ টি খ. ৮ টি গ. ৯ টি ঘ. ১১ টি উ: গ
০৯. বাংলাদেশের কোন কৃষি পণ্যটি বিশ্বজুড়ে ‘কুষ্টিয়া গ্ৰেড’ নামে পরিচিত ?
ক. ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল খ. চিংড়ি গ. ইলিশ ঘ. আম উ: ক
১০. ইলিশের জীবনরহস্য উম্মোচিত হয় কবে ?
ক. ১৬ জুন ২০১০ খ. ২৪ জানুয়ারি ২০১৪ গ. ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ঘ. ১৩ নভেম্বর ২০১৮ উ: গ
১১. ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগলের জীবনরহস্য উম্মোচিত হয় কবে ?
ক. ১৬ জুন ২০১০ খ. ২৪ জানুয়ারি ২০১৪ গ. ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ঘ. ১৩ নভেম্বর ২০১৮ উ: ঘ
১২. ড . মাকসুদুল আলম কে ছিলেন ?
ক. সমাজবিজ্ঞানী খ. জিনতত্ত্ববিদ গ. রাজনীতিক ঘ. চিকিৎসক উ: খ
১৩. বাংলাদেশে প্রথম কোন পণ্যটির জীবনরহস্য উম্মোচিত হয় ?
ক. পাট খ. মহিষ গ. ব্ল্যাক বেঙ্গল ছাগল ঘ. ইলিশ উ: ক

বাংলাদেশের অর্থনীতি

জাতীয় বাজেট ২০২১-২০২২
◊ বাজেট শব্দটি ফরাসি শব্দ থেকে এসেছে। বাংলাদেশের সংবিধানের ২ য় পরিচ্ছেদে বাজেট ও অর্থ সংক্রান্ত বিষয়ে বলা হয়েছে এবং ১৫২ নং অনুচ্ছেদে অর্থ বছরের কথা বলা হয়েছে। সংবিধানে বাজেটকে বলা হয় Annual financial statement. বাজেট সম্পর্কিত আইন ‘সরকারি অর্থ ও বাজেট ব্যবস্থাপনা আইন, ২০০৯’ নামে পরিচিত। বাংলাদেশে বাজেট প্রণয়ন করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ। বাংলাদেশের বাজেটের সময়কাল বা অর্থবছর ১ জুলাই – ৩০ জুন।
◊ বাজেট: ৫০ তম (অন্তবর্তীকালীনসহ ৫১ তম। অন্তবর্তীকালীন বাজেটটি পেশ হয় ১৯৯৬-৯৭ অর্থবছরে)
◊ বাজেট ঘোষণা: ৩ জুন, ২০২১।
◊ পাশ হয় ৩০ জুন ২০২১ (কার্যকর ১ জুলাই ২০২১)।
◊ স্লোগান: “সুদৃঢ় আগামীর পথে বাংলাদেশ”।
◊ ঘোষক: অর্থমন্ত্রী আ.হ.ম মুস্তফা কামাল (এটি আওয়ামী লীগ সরকারের ২১ তম এবং একটানা ১৩ তম বাজেট)।
◊ মোট বাজেট: ৬,০৩,৬৮১ কোটি টাকা (জিডিপি’র ১৭.৫%)।
◊ সামগ্রিক আয় (রাজস্ব ও অনুদানসহ): ৩,৯২,৪৯০ কোটি টাকা (জিডিপি’র ১১.৪৪%)। বাজেটের ৬৭.০১%।
◊ রাজস্ব আয়: ৩,৮৯,০০০ কোটি টাকা [জিডিপি’র ১১.৩% ; বাজেটের ৬৪.৫%]।
◊ বৈদেশিক অনুদান: ৪,৪৯০ কোটি টাকা (জিডিপি’র ০.১০% ; বাজেটের ০.৬৫%]।
◊ সামগ্রিক ঘাটতি (অনুদানসহ): ২,১১,১৯১ কোটি টাকা [জিডিপি’র ৬.১% ; বাজেটের ৩৪.৯৯%]।
◊ মোট জিডিপি: ৩৪,৫৬,০৪০ কোটি টাকা।
◊ সর্বোচ্চ বরাদ্দকৃত খাত: জনপ্রশাসন (১,১২,৭১০ কোটি টাকা)।
◊ শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে বরাদ্দ (দ্বিতীয়): ৯৪,৮৭৭ কোটি টাকা।
◊ করমুক্ত আয়সীমা: সাধারণ ব্যক্তি ৩,০০,০০০ টাকা, মহিলা ও ৬৫ বছরের ঊর্ধ্ব ৩,৫০,০০০ টাকা, প্রতিবন্ধী ৪,৫০,০০০ টাকা, গেজেটভূক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ৪,৭৫,০০০ টাকা।
◊ প্রত্যাশিত প্রবৃদ্ধির হার ৭.২%।
◊ মূল্যস্ফীতির হার: ৫.৩%।
◊ মাথাপিছু আয়: ২৪৬২ মার্কিন ডলার।
◊ দেশের প্রথম জেলা বাজেট হয়: টাঙ্গাইলে (২০১৩)।
◊ এ পর্যন্ত সর্বোচ্চ সংখ্যক বাজেট পেশ করেন: আবুল মাল আবদুল মুহিত (টানা ১০ বার ) এবং সাইফুর রহমান (যৌথভাবে ; ১২ বার)।
◊ স্বাধীন বাংলাদেশে প্রথম বাজেট উপস্থাপন করেন তৎকালীন অর্থ ও পরিকল্পনামন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমদ (৩০ জুন ১৯৭২)।
◊ বাংলাদেশের প্রথম বাজেটের আকার ছিল: ৭৮৬ কোটি টাকা। ২০২১-২২ এ বাজেটের আকার ৬,০৩,৬৮১ কোটি টাকা।
 
মৌলিক অর্থসূচকে বাংলাদেশ (অর্থবছর ২০২০-২১)
[বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) ৫ আগস্ট ২০২১ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে।]
◊ বাংলাদেশের জনসংখ্যা: ১৬৯.৩১ মিলিয়ন বা ১৬,৯৩,১০,০০০ জন।
◊ জিডিপি: ৩০, ১১০,৬৪৬ মিলিয়ন টাকা।
◊ মাথাপিছু জিডিপি: ২,০৯৭ মার্কিন ডলার বা ১,৭৭,৮৪৩ টাকা।
◊ মাথাপিছু আয়: ২,২২৭ মার্কিন ডলার বা ১,৮৮,৮৭৩ টাকা।
◊ জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ৫.৪৭%।
 
জিডিপি’তে সার্বিক খাতসমূহের অবদান ও প্রবৃদ্ধির হার ২০২০-২১ (সাময়িক)
◊ কৃষি → প্রবৃদ্ধির হার ৩.৪৫% & অবদানের হার ১৩.৪৭%।
◊ শিল্প → প্রবৃদ্ধির হার ৬.১২% & অবদানের হার ৩৪.৯৯%।
◊ সেবা → প্রবৃদ্ধির হার ৫.৬১% & অবদানের হার ৫১.৫৩%।
◊ সার্বিক → জিডিপি (উৎপাদন মূল্য) প্রবৃদ্ধির হার ৫.৪৭% & অবদানের হার ১০০.০০%।

অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০২১

[অর্থনৈতিক সমীক্ষা প্রকাশ করে অর্থ মন্ত্রণালয়।]
◊ জনমিতিক সাধারণ তথ্যাদি
→ জনসংখ্যা [১ জুলাই, ২০২০ (প্রাক্কলিত)]: ১৬ কোটি ৮২ লাখ।
→ জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ১.৩৭ %।
→ পুরুষ ও মহিলার অনুপাত: ১০০.২ : ১০০।
→ জনসংখ্যার ঘনত্ব: প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১১৪০ জন।
◊ মৌলিক জনমিতিক পরিসংখ্যান
→ প্রত্যাশিত গড় আয়ুষ্কাল ৭২.৮ বছর (পুরুষ- ৭১.২ বছর এবং মহিলা ৭৪.৫ বছর)।
→ স্থূল জন্মহার (প্রতি ১০০০ জনে): ১৮.১ জন।
→ স্থুল মৃত্যুহার (প্রতি ১০০০ জনে): ৫.১ জন।
→ স্থির মূল্যে জিডিপি (কোটি টাকা): ১২,০৭, ২৪৬।
→ শিশু মৃত্যুহার (প্রতি ১০০০ জীবিত জন্মে): ২১ জন।
→ প্রথম বিবাহের গড় বয়স: পুরুষ ২৫.২ বছর এবং মহিলা ১৯.১ বছর।
→ গর্ভ নিরোধক ব্যবহারের হার: ৬৩.৯%।
 
◊ আর্থিক ও বাণিজ্যিক পরিসংখ্যান (ফেব্রুয়ারি ২০২১ পর্যন্ত)
→ মূল্যস্ফীতি: ৫.৫৬ শতাংশ।
→ মোট ব্যাংক: ৬১ টি।
→ রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক: ৬ টি।
→ বিশেষায়িত ব্যাংক: ৩ টি।
→ বেসরকারি: ৪৩ টি।
→ আর্থিক প্রতিষ্ঠান (ব্যাংক বহির্ভূত): ৩৪ টি।
→ বৈদেশিক ব্যাংক: ৯ টি।
→ আমদানি ব্যয়ের পরিমাণ: ৬০,৬৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।
→ বৈদেশিক মুদ্রা আয়: ২৪,৭৭৮ মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার।
→ বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ (৩০ জুন ২০২১ পর্যন্ত): ৪৬,৩৯১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।
→ মুদ্রাস্ফীতি: ৫.৫৬ শতাংশ।
→ বাংলাদেশি পণ্য রপ্তানিতে শীর্ষ দেশ: যুক্তরাষ্ট্র।
→ বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি পণ্য আমদানি করে : চীন থেকে।
→ বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি রেমিটেন্স আয় করে: সৌদি আরব থেকে।
 
◊ মোট দেশজ উৎপাদন (জিপিডি): (২০২০-২১ সাময়িক)
→ চলতি মূল্যে জিপিডি (কোটি টাকা): ৩০,১১,০৬৫।
→ মাথাপিছু আয়: ২২২৭ মার্কিন ডলার (১,৮৮,৮৭৩ টাকা)।
→ মাথাপিছু জিডিপি: ২০৯৭ মার্কিন ডলার (১,৭৭,৮৪৩ টাকা)।
→ জিডিপি’র প্রবৃদ্ধির হার: ৫.৪৭ শতাংশ।
 
◊ স্বাস্থ্য ও সামাজিক সেবা
→ ডাক্তার ও জনসংখ্যার অনুপাত (২০১৮): ১ : ১৭২৪ জন।
→ স্বাক্ষরতার হার (৭ বছর +): ৭৫.২ শতাংশ (পুরুষ ৭৭.৪ শতাংশ এবং মহিলা ৭২.৯ শতাংশ)।
→ সুপেয় পানি গ্রহণকারী : ৯৮.৩ শতাংশ।
→ স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহারকারী : ৮১.৫ শতাংশ।
→ ২০২০-২১ অর্থবছরে দেশের মোট রপ্তানি আয়ের পরিমাণ: ৩৭,৮৮২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।
 
◊ শ্রমশক্তি হালনাগাদ (২০১৬-১৭ অনুযায়ী)
→ মোট শ্রমশক্তি (১৫ বছর+): ৬.৩৫ কোটি (পুরুষ ৪.৩৫ কোটি এবং নারী ২ কোটি)।
→ খাতভিত্তিক শ্রমশক্তি : কৃষি ৪০.৬ শতাংশ , সেবা ৩৯ শতাংশ , শিল্প ২০.৪ শতাংশ।
 
◊ দারিদ্র্য পরিস্থিতি (২০১৮-১৯)
→ দারিদ্রের হার: ২০.৫
→ চরম দারিদ্রের হার: ১০.৫ %
→ রেমিটেন্স প্রাপ্তিতে বাংলাদেশের অবস্থান: ৮ম
 
◊ যোগাযোগ
→ জাতীয় মহাসড়ক: ৩,৯৪৪ কিলোমিটার।
→ রেলপথ: ৩,০১৯ কিলোমিটার।

অষ্টম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা

 ◊ মেয়াদকাল: জুলাই, ২০২০ থেকে জুন, ২০২৫।
◊ প্রস্তাবিত স্লোগানঃ দক্ষতার উন্নয়নে বিনিয়োগ।
◊ গুরুত্বপূর্ণ খাত:
১. কর্মসংস্থান তৈরিতে প্রবৃদ্ধি বা জিডিপি গ্রোথ,
২. সবার সমান সুবিধা নিশ্চিত করতে সাম্য ও সমতা এবং
৩. জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব মোকাবিলা করা।
◊ সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য পাবে: গ্রাম।
◊ গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যসমূহঃ
১. ৭৫ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টি।
২. ৭৭ লাখ কোটি টাকা বিনিয়োগ। যার ৭৬% বেসরকারি খাতের।
৩. ডেল্টা ২১০০ প্ল্যানের কার্যক্রম শুরু।
৪. ২০২৪-২৫ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮.৫ % অর্জন।
৫. দারিদ্র্যের হার ১২.১৭ % এ নামিয়ে আনা।
◊ প্রধান লক্ষ্য: পাশ্চাত্যের দেশগুলোর মতো গ্রামগুলোকে সাজানো, দেড় কোটি নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির কৌশল
◊ মনে রাখুন, ভিশন -২০৪১ বাস্তবায়নে (২০২১-২০৪১) মোট পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা থাকছে ৪ টি। ৮ ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা হচ্ছে এর প্রথম। অষ্টম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার প্রথম ধাপ হবে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রস্তুতি ( ২০২০ থেকে ) নেয়া।
◊ বাংলাদেশ এ পর্যন্ত পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা প্রণীত হয়েছে – ৮ টি।
◊ বাংলাদেশে এ পর্যন্ত পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হয়েছে – ৭ টি।
◊ বাংলাদেশের প্রথম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা মেয়াদ ১৯৭৩-১৯৭৮ সাল পর্যন্ত।
◊ বাংলাদেশে বর্তমানে জাতীয় মাথাপিছু আয় কত ? উ: ২৫৫৪ মার্কিন ডলার।
◊ দেশে একটি দ্বিবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণীত হয়েছিল- ১৯৭৮-১৯৮০ মেয়াদে।
◊ জিডিপি’র নতুন ভিত্তি বছর কোনটি ? উ: ২০১৫-১৬ [এ নিয়ে পঞ্চমবারের মতো জিডিপি’র ভিত্তি বছর নির্ধারণ করা হলো। দেশের জিডিপি নির্ধারণে প্রথম ভিত্তি বছর ছিল ১৯৭২-৭৩। নতুন ভিত্তি বছরে খাত ২৪ টি]।

বাংলাদেশের শিল্প ও বাণিজ্য

 ◊ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশ
→ বাংলাদেশ কবে স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে জায়নশীল দেশে উত্তরণের জন্য চূড়ান্ত সুপারিশপ্রাপ্ত হয় ? উ: ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১।
→ জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ (এলডিসি) থেকে উত্তরণের সুপারিশ করে কবে ? উ: ২৩ নভেম্বর, ২০২১।
→ বাংলাদেশের সাথে আর কোন দু’টি দেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের জন্য সুপারিশপ্রাপ্ত হয় ? উঃ নেপাল ও লাওস।
→ বাংলাদেশ কবে Least Developed Country (LDC) থেকে বের হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ? উ: ২০২৬ সালে।
→ বাংলাদেশ কবে Least Developed Country (LDC) দেশের তালিকায় যুক্ত হয় ? উ: ১৯৭৫ সালে।
→ বাংলাদেশ কবে Least Developed Country ( LDC) বা স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের সব শর্ত পূরণ করে ? উ: ২০১৮ সালে।
→ জাতিসংঘ করে এক ঘোষণার মাধ্যমে Least Developed Country (LDC) গড়ে তোলে ? উ: ১৮ নভেম্বর, ১৯৭১ (তখন LDC দেশ ছিল ২৫ টি)।
→ বর্তমানে বিশ্বে Least Developed Country (LDC) বা স্বল্পোন্নত দেশ কয়টি ? উ: ৪৬ টি।

◊ তিস্তা মহাপরিকল্পনা

→ নাম: তিস্তা নদী সমন্বিত ব্যবস্থাপনা প্রকল্প।
→ অবস্থান: তিস্তা ব্যারেজ হতে মহিপুর ও কাউনিয়া হয়ে তিস্তার মোহনা।
→ দৈর্ঘ্য: ১১৫ কিলোমিটার।
→ ব্যয়: প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকা।
→ জরিপ করেছে: চায়না পাওয়ার কোম্পানি (চীন)।
→ সহায়তাকারী দেশ: চীন।
→ কৃষিসহ জমি অধিগ্রহণ হবে: ১৭০ বর্গকিলোমিটার।
→ পরবর্তীতে সংযুক্ত হতে পারে: আত্রাই , করতোয়া ও পুনর্ভবা নদী।
→ তিস্তা ব্যারেজ অবস্থিত: নীলফামারী জেলার দোয়ানি নামক স্থান।

◊ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর

→ অবস্থান: চট্টগ্রামের মীরসরাই, সীতাকুণ্ড এবং ফেনীর সোনাগাজী।
→ বিশেষত্ব: দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ শিল্পাঞ্চল।
→ অগ্রাধিকার: সরকার দেশে ১০০ টি ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠার যে লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে তার মধ্যে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পাওয়া ইকোনমিক জোন হচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর

◊ বাংলাদেশের বর্তমান মুদ্রা ব্যবস্থা

→ বর্তমানে দেশে টাকার কাগুজে নোট রয়েছে: ১০ টি ব্যাংক
→ নোট: ৭ টি (১০, ২০, ৫০, 100, 200, ৫০০ এবং ১০০০)।
→ সর্বশেষ ব্যাংক নোট ২০০ চালু হয় ১৭ মার্চ ২০২০ (বাজারে আসে ১৮ মার্চ ২০২০)।
→ ব্যাংক নোট বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক প্রবর্তিত হয় এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের স্বাক্ষর থাকে।
→ সরকারি নোট: ৩ টি (১ , ২ এবং ৫)।
→ সরকারি নোট বাংলাদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে প্রবর্তিত হয় এবং অর্থ সচিবের স্বাক্ষর থাকে।
→ মুদ্রক: দি সিকিউরিটি প্রিন্টিং কর্পোরেশন (বাংলাদেশ) লিমিটেড (গাজীপুরে অবস্থিত)।

◊ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

→ নতুন প্রজন্মের আর্থিক চাহিদা পূরণে ‘ডিজিটাল ব্যাংক’ চালুর উদ্যোগ নিয়েছে বেসরকারি খাতের প্রতিষ্ঠান ‘ব্যাংক এশিয়া’।
→ বর্তমানে বাংলাদেশ ওষুধ রপ্তানি করছে- ১৪৮ টি দেশে (সূত্র: জাতীয় সংসদে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ; ১৬ নভেম্বর , ২০২০)।
→ স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষে ২০২১ সালকে ঘোষণা করা হয়েছে – ‘পর্যটন বর্ষ’।
→ বর্তমানে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য চুক্তি রয়েছে ৪৫ টি দেশের সাথে।
→ বাংলাদেশের দ্বিতীয় প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ২০ বছর মেয়াদি (২০২১-২০৪১)।
→ ২০৩০ সালে সালে বাংলাদেশ হবে: বিশ্বের বৃহৎ ২৬ তম দেশ (বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির দেশ হবে: চীন)।
 

◊ শিল্প ও বাণিজ্য সংক্রান্ত যা কিছু বাংলাদেশের প্রথম

→ দেশের প্রথম ওয়াই-ফাই সিটি হিসেবে যাত্রা শুরু করেছে সিলেট।
→ দেশের প্রথম এলিভেটেড রেলওয়ে স্টেশন নির্মিত হচ্ছে- ঢাকার কেরাণীগঞ্জে।
→ দেশের প্রথম বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মিত হবে- পটুয়াখালীর পায়রায়।
→ বাংলাদেশের প্রথম চামড়া শিল্পনগরী অবস্থিত- ঢাকার সাভারে।
→ দেশের প্রথম এলপিজিভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মিত হবে পটুয়াখালীতে।
→ দেশের প্রথম ভাসমান তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) টার্মিনাল অবস্থিত – কক্সবাজারের মহেশখালীতে।
→ দেশের প্রথম সৌরবিদ্যুৎ সুবিধাসহ বহুতল খাদ্যগুদাম- বগুড়ার সান্তাহারে।
→ দেশের প্রথম পরিবেশবান্ধব পোশাক কারখানা নির্মাণ করা হয়েছে ঢাকার ধামরাইয়ে।
→ প্রস্তাবিত দেশের প্রথম ভাসমান সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র হবে বাগেরহাট জেলার মোংলায়।
→ প্রস্তাবিত দেশের প্রথম সিলিকন সিটি – রাজশাহী।
→ দেশের প্রথম মোবাইল ফোন টিভি চ্যানেল – ‘চ্যানেল ২৬’।
→ বাংলাদেশে তৈরি প্রথম যুদ্ধজাহাজ বনৌজা পদ্মা।
→ দেশের প্রথম পাতাল রেল হবে- বিমানবন্দর – কমলাপুর রুটে।
→ দেশের প্রথম সমুদ্র গবেষণা ইনস্টিটিউট হচ্ছে – রামু, কক্সবাজারে।
→ প্রস্তাবিত মুদ্রণশিল্প নগরী করা হবে – মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে।
→ প্রস্তাবিত ঔষধ শিল্প পার্ক হবে – মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায়।
→ প্রস্তাবিত খানজাহান আলী বিমানবন্দর হবে – বাগেরহাটের রামপালে।
→ দেশের প্রথম পোশাক শিল্পপার্ক নির্মাণ হচ্ছে – গজারিয়া, মুন্সিগঞ্জে।
→ প্রস্তাবিত গার্মেন্টস পল্লী হবে- মুন্সিগঞ্জের বাউশিয়াতে।
→ দেশে প্রথম নকশিপল্লী গড়ে তোলা হবে- জামালপুরে।
→ প্রস্তাবিত শেখ মুজিব ফায়ার একাডেমি কোথায় স্থাপন করা হবে ? উ: মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায়।
 
◊ বর্তমানে দেশে গ্যাসক্ষেত্র কয়টি ? উঃ ২৮ টি (সর্বশেষ ও ২৮ তম গ্যাসক্ষেত্র অবস্থিত সিলেটের জকিগঞ্জে)।
◊ বাংলাদেশের ২৮ তম গ্যাসক্ষেত্রটির আবিষ্কারক – বাপেক্স বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প কোথায় অবস্থিত ? উ: ময়মনসিংহ সদর উপজেলার সুতিয়াখালী (প্রশাসনিকভাবে গৌরিপুর উপজেলার ভাংনামারি)।
◊ ‘বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু -১’ কবে উদ্বোধন করা হয় ? উ: ৯ মার্চ, ২০২১ [ফেনী নদীর উপর]।
◊ বাংলাদেশ সম্প্রতি (৬ ডিসেম্বর, ২০২০) কোন দেশের সাথে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি বা Preferential Trade Agreement ( PTA ) স্বাক্ষর করে ? উঃ ভুটান।
◊ দেশে বর্তমানে চালুকৃত ফায়ার স্টেশন আছে কয়টি ? উঃ ৪৫৬ টি।
◊ কূটনৈতিক, অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক সহযোগিতা বাড়াতে বিশ্বের কুটি দেশের সাথে বাংলাদেশের ভিসা অব্যাহতি চুক্তি রয়েছে ? উঃ ২০ টি।
◊ ‘পদ্মা সেতু বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য’ কোন জেলার চর ও জলাভূমির আওতাভুক্ত ? উ: মাদারীপুর, শরীয়তপুর, মুন্সিগঞ্জ ও ফরিদপুর।
◊ ঢাকা শিশু হাসপাতালের বর্তমান নাম কী ? উ: বাংলাদেশ শিশু হাসপাতাল ও ইনস্টিটিউট।
◊ বগুড়া-সিরাজগঞ্জ রেললাইন নির্মাণে বাংলাদেশ কোন দেশের সাথে চুক্তি করে ? উ: ভারত।
◊ বাংলাদেশ কততম দেশ হিসেবে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এনএলজি) ক্লাবে প্রবেশ করে ? উ: ৪২ তম।
◊ দীর্ঘ ৫৫ বছর পর হলদিবাড়ী – চিলাহাটি রেলপথ দিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে নিয়মিত মালবাহী ট্রেন কবে চালু হয় ? উ: ১ আগস্ট, ২০২১।
◊ বাংলাদেশ সম্প্রতি কোন দেশকে ঋণ দিয়েছে ? উ: শ্রীলংকা।
◊ বর্তমানে দেশে বেসরকারি খাতে অনুমোদন পাওয়া টেলিভিশন কয়টি ? উ: ৪৫ টি (এফএম রেডিও ২৭ টি এবং কমিউনিটি রেডিও ৩১ টি) ।
◊ দেশের বৃহত্তম ইপিজেড (রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল) কোথায় নির্মিত হবে ? উ: পটুয়াখালীর সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নে।
◊ বাংলাদেশ বিমান বহরে বর্তমানে উড়োজাহাজের সংখ্যা কত ? উ: ২১ টি (সর্বশেষ ২ টি উড়োজাহাজ হচ্ছে ‘আকাশতরী’ ও ‘শ্বেত বলাকা’) ।
◊ মেট্রোরেলের ট্রেনগুলো নির্মাণ করছে কোন প্রতিষ্ঠান ? উ: কাওয়াসিকি-মিত্সুবিশি (জাপান)।
◊ বাংলাদেশ অবকাঠামো উন্নয়ন তহবিল (বিআইডিএফ) থেকে প্রথম ঋণ দেওয়া হয় কোন প্রতিষ্ঠানকে ? উ: পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষকে।
◊ কক্সবাজার জেলা রেলপথে যুক্ত হবে কবে ? উ: ২০২২ সালের মধ্যে।
◊ ঢাকা-জলপাইগুড়ি রেলপথের দূরত্ব কত ? উ: ৫৯৫ কিমি।
◊ সম্প্রতি স্বাধীনতা সড়ক ( মুজিবনগর – কলকাতা ) কবে চালু হয় ? উ: ২৬ মার্চ , ২০২১।
◊ সম্প্রতি কবে শীতলক্ষ্যা নদীতে লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে ? উ: ৪ এপ্রিল, ২০২১।
◊ ২০১৯-২০ অর্থবছরে বাংলাদেশ কোন দেশে সবচেয়ে বেশি চা রপ্তানি করেছে ? উ: পাকিস্তান (দ্বিতীয় সংযুক্ত আরব আমিরাত)।
◊ দেশের প্রথম মহাকাশ অবলোকন কেন্দ্র কোথায় নির্মিত হবে ? উ: ফরিদপুরের ভাঙ্গায়।
◊ দীর্ঘ ৫৫ বছর পর নীলফামারীর চিলাহাটি থেকে ভারতের হলদিবাড়ির মধ্যে ট্রেন চালু হয় কবে ? উ: ১৭ ডিসেম্বর, ২০২০।
◊ দেশের প্রথম ভূতাত্ত্বিক জাদুঘর স্থাপিত হবে কেথায় ? উ: জাফলং, সিলেট।

বাংলাদেশের সরকার ব্যবস্থা

বাংলাদেশে বর্তমানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শীর্ষ ব্যক্তিত্ব

 ◊ প্রধান বিচারপতি → হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী (২৩ তম)।
◊ অ্যাটর্নি জেনারেল → আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন (১৬ তম)।
◊ প্রধান নির্বাচন কমিশনার → কে এম নুরুল হুদা (১২ তম)।
◊ বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর → ফজলে কবির (১১ তম)।
◊ বাংলাদেশের সেনাপ্রধান → এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ (১৭ তম)।
◊ নৌবাহিনীর প্রধান → মোহাম্মদ শাহীন ইকবাল।
◊ বিমান বাহিনীর প্রধান → শেখ আবদুল হান্নান (১৬ তম)।
◊ পুলিশ এর মহাপরিদর্শক (আইজি) → বেনজীর আহমেদ (৩০ তম)।
◊ বিজিবি এর মহাপরিচালক → মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলাম (২২ তম)।
◊ র‍্যাব এর মহাপরিচালক → চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন।
◊ বাংলাদেশ কর্মকমিশনের চেয়ারম্যান → মো . সোহরাব হোসাইন (১৪ তম)।
◊ দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান → মোহাম্মদ মঈনউদ্দিন আবদুল্লাহ (৬ষ্ঠ)।
◊ প্রধান তথ্য কমিশনার → মরতুজা আহমদ।
◊ মহাহিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রক → মোঃ নূরুল ইসলাম।
◊ জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ( এনবিআর ) এর চেয়ারম্যান → আবু হেনা রহমাতুল মুনিম।
◊ জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান → নাছিমা বেগম (৪র্থ)।
◊ আইন কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি → এবিএম খাইরুল হক।
◊ জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান → বিচারপতি হাসান ফয়েজ।
◊ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান → ড. কাজী শহীদুল্লাহ (১৩ তম)।

নতুন থানা ও পৌরসভা এবং সর্বশেষ

◊ দেশে বর্তমানে বিভাগ: ৮ টি (সর্বশেষ- ময়মনসিংহ)।
◊ দেশের নবম বিভাগ হবে (প্রস্তাবিত): পদ্মা বিভাগ (প্রস্তাবিত পদ্মা বিভাগ ঢাকা বিভাগের ৫ টি জেলা নিয়ে গঠিত হবে)।
◊ দেশে বর্তমানে সিটি কর্পোরেশন: ১২ টি (সর্বশেষ- ময়মনসিংহ)।
◊ দেশের ১৩ তম সিটি কর্পোরেশন হবে (প্রস্তাবিত): ফরিদপুর সিটি কর্পোরেশন (পদ্মা বিভাগ কার্যকর হলে ফরিদপুরকে সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত করা হবে)।
◊ দেশে বর্তমানে পৌরসভা: ৩২৮ টি (সর্বশেষ- বিশ্বনাথ পৌরসভা, সিলেট)।
◊ দেশে বর্তমানে উপজেলা: ৪৯৫ টি (সর্বশেষ- কক্সবাজারের ঈদগাঁও, মাদারীপুরের ডাসার এবং সুনামগঞ্জের মধ্যনগর)।
◊ দেশে বর্তমানে থানা: ৬৫২ টি ( সর্বশেষ কক্সবাজারের ঈদগাঁ)।
◊ দেশে বর্তমানে ইউনিয়ন: ৪৫৭১ টি।
◊ সরকারি চাকুরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণি কর্মকর্তা নিয়োগে কোটা প্রথা বিলুপ্ত করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কবে পরিপত্র জারি অক্টোবর ২০১৮।
◊ বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের বর্তমান ক্যাডার সংখ্যা কতটি ? উ: ২৬ টি।
◊ তথ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন নাম কী ? উ: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় [মন্ত্রীর নাম- হাসান মাহমুদ]।
◊ প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের মেয়াদ শেষ কবে ? উ: ৩০ ডিসেম্বর, ২০২১।
◊ সংবিধান অনুযায়ী বিচারপতিদের অবসরের বয়সসীমা কত ? উ: ৬৭ বছর।

বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অর্জনসমূহ

 ◊ প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক হিসেবে কে যুক্তরাষ্ট্রের মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন ? উ: মাহবুবুল তৈয়ব [তার পৈত্রিক বাড়ি চট্টগ্রামে]।
◊ নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচনে কোন দু’জন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক জয়ী হয়েছেন ? উ: শাহানা হানিফ এবং সোমা সাঈদ।
◊ সম্প্রতি কোন দেশে বঙ্গবন্ধু মিডিয়া সেন্টার উদ্বোধন করা হয় ? উ: ভারতে।
◊ সম্প্রতি কোন দেশ দক্ষিণ এশীয় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কাউন্সিলের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে ? উ: বাংলাদেশ [২০২৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের শ্যামসুন্দর সিকদার চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন]।
◊ আর্থিক ও প্রযুক্তিগত সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ সম্প্রতি কোন দেশের সাথে চুক্তি করেছে ? উ: ফ্রান্স।
◊ সম্প্রতি কোন বাংলাদেশি ডাক্তারি পরীক্ষায় বিশ্বসেরা হওয়ার গৌরব অর্জন করেন ? উ: মাহমুদুল হক জেসি।
◊ সম্প্রতি কে ‘কমনওয়েলথ ইয়াং পারসন অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হন ? উ: ফয়সাল ইসলাম।
◊ বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব সম্প্রতি দেশের বাইরে কোন দেশের পার্লামেন্টে স্বীকৃতি দেয় ? উ: মার্কিন কংগ্রেসে।
◊ ২০২১ সালে কোন দেশে বঙ্গবন্ধুর নামে সড়কের নামকরণ করা হয়েছে ? উ: ফিলিস্তিন।
◊ সম্প্রতি (৬ ডিসেম্বর, ২০২০) বাংলাদেশ কোন দেশের সাথে প্রথম দ্বিপক্ষীয় অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষর করে ? উ: ভুটান
◊ ২০২০ সালে কোন দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের ৪৫ তম বার্ষিকী পালিত হলো ? উ: চীন
◊ সম্প্রতি যুক্তরাজ্য সরকার বাংলাদেশের কোন চিকিৎসককে ‘ভ্যাকসিন তারকা’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ? উ: তাসনিম জারা
◊ ১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ প্রথম কোনো বাংলাদেশি হিসেবে icddrb’র নির্বাহী পরিচালক পদে যোগ দেন কে ? উ: ড. তাহমিনা আহমেদ
◊ দেশের প্রথম এবং বিশ্বের সর্ববৃহৎ জলবায়ু উদ্বাস্তু আশ্রয়কেন্দ্র কোথায় অবস্থিত ? উ: কক্সবাজারের খুরুশকুলে বাঁশখালী নদীর তীরে
◊ বিশ্বের জলবায়ু পরিবর্তনের পরিপ্রেক্ষিতে ঝুঁকির মুখে থাকা ৪৮ টি দেশের জোট Climate Vulnerable Forum (CVF) এর থিমেটিক অ্যাম্বাসেডর নিযুক্ত হয়ছেন বাংলাদেশের সায়মা ওয়াজেদ পুতুল।
◊ Climate Vulnerable Forum (CVF) I Vulnerable Twenty (V20) গ্রুপের মিনিস্টার অব ফিন্যান্স -এর ২০২০-২০২২ মেয়াদে সভাপতিত্ব করবে বাংলাদেশ । জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য কাজ করবে
এ আন্তর্জাতিক ফোরাম।
◊ বিশ্বের শীর্ষ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের নমন্বয়ে গঠিত ‘ওয়ান হেলথ গ্লোবাল লিডার্স গ্রুপ অন অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিসট্যান্স’র কো-চেয়ার মনোনীত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।
◊ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থান- প্রথম।

সাম্প্রতিক সময়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের আলোচিত ব্যক্তিবর্গ

০১. জাইন সিদ্দিক: ৪৬ তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের হোয়াইট হাউজের ডেপুটি চিফ অব স্টাফের সিনিয়র অ্যাডভাইজার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক জাইন সিদ্দিক। জাইন সিদ্দিক এর পৈত্রিক নিবাস বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইলে।
০২. ফারাহ আহমেদ: মার্কিন কৃষি বিভাগের আওতাধীন পল্লী উন্নয়ন আন্ডার সেক্রেটারি কার্যালয়ে চিফ অব স্টাফ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক ফারাহ আহমেদ।
০৩. কাজী সাবিল রহমান: কাজী সাবিল রহমান জো বাইডেন প্রশাসনে এক্সিকিউটিভ ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড রেগুলেটরি সিনিয়র অফিসার্স হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। তার পৈত্রিক বাড়ি ফেনী জেলায়।
০৪. রুমানা আহমেদ: রুমানা আহমেদ জো বাইডেন প্রশাসনের ইউনাইটেড স্টেটস এজেন্সি ফর গ্লোবাল মিডিয়ার রিভিউ প্যানেলে কর্মরত আছেন।
০৫. রাবাব ফাতিমা: বর্তমানে ইউনিসেফ নির্বাহী বোর্ডের প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাবাব ফাতিমা।
০৬. ডা. তাহমিদ আহমেদ: আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রের (icddr, b) ৬০ বছরের গৌরবময় ইতিহাসে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে নির্বাহী পরিচালক পদে নিয়োগ লাভ করেন ডা. তাহমিদ আহমেদ। ১ ফেব্রুয়ারি ২০২১ নির্বাহী পরিচালক পদে তিনি যোগ দেন।
০৭. ড. সুভাষ চন্দ্র সাহা: যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও এলসেভিয়ার প্রকাশনা সংস্থার জরিপে বিশ্বসেরা ২ শতাংশ বিজ্ঞানীর তালিকায় স্থান পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ড. সুভাষ চন্দ্র সাহা।
০৮. ডা. সেজুতি সাহা: প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে দেশের বেসরকারি প্রতিষ্ঠান চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশনের অণুজীববিজ্ঞানী ডা. সেজুতি সাহা সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ‘Polio Transition Independent Monitoring Board’ এর সদস্য হিসেবে নিয়োগ পান।
০৯. সাদাত রহমান: ‘সাইবার বুলিং’ থেকে শিশুদের রক্ষায় কাজ করে ২০২০ সালের আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কার লাভ করেন বাংলাদেশের কিশোর সাদাত রহমান।
১০. জাহিন রাজিন: বিশ্বজুড়ে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে তরুণ নেতৃত্ব বাছাই করেছে জাতিসংঘ। বিশ্বের -বিভিন্ন অঞ্চলের ১৭ জন তরুণকে এ ক্ষেত্রে নেতা হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে। সেই ছোট্ট তালিকায় স্থান পেয়েছেন বাংলাদেশি তরুণ জাহিন রাজিন।

Recent General Knowledge in University Admission Tests Part 01

Downlod PDF Now

2020-21 session Exam Qustion Analysis

Part 01Part 02

Genaral Knowledge Update

নোট ০১নোট ০২নোট ০৩নোট ০৪নোট ০৫নোট ০৬

পিডিএফটি যদি আপনাদের উপকারে আসে তাহলে শেয়ার করে আপবার বন্ধুদের পড়তে সহযোগিতা করুন।

Disclaimer: Dear, For your sort, we truly need to repudiate that all informations have been introduced here in this happy are gathered from internet through obvious notification and news sources. As nobody is up above to messes up, so there might be several willing errors past our site. If nobody truly minds one way or the other, excuse us for these unintesional mitakes and let us in on about it through our email: @gmail.com or Facebook: https://www.facebook.com/admissioninfos01/

Connected With Us

new-facebook-find-us-on-facebook.jpg

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments